LOADING

অটিজম সুরক্ষায় গৃহিত নীতিমালা সমুহ

অটিজম সুরক্ষায় গৃহিত নীতিমালা সমুহ

by admin December 29, 2018
অটিজম সুরক্ষায় গৃহিত নীতিমালা সমুহ

অটিজম সুরক্ষায় গৃহিত নীতিমালা সমুহঃ অটিজম সচেতনতা, সামাজিক অন্তর্হতি, শিক্ষা,প্রশিক্ষণ ও গবেষণার জন্য ৫ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। ১) অটিস্টিক শিশুর মা বাবার ক্ষমতায়ন ২) নীতি ও অবকাঠামো চিহ্নিতকরন ৩)সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি বেসরকারি সংস্থা ওঅভিভাবকদের সমন্বয় ৪)দক্ষ পেশাজীবি গড়ে তোলা ও অধিকতর শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে তাদের সামর্থ্য বাড়ানো, প্রচলিত ৫)প্রচলিত জনস্বাস্থ্য, শিক্ষা ও কর্মসংস্থান প্রশিক্ষণে অটিজমকে সম্পৃক্ত করা। ৬)দীর্ঘমেয়াদি সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় অন্তর্ভূক্ত করা ৭) সার্বক্ষনিক মনিটরিং ও গবেষণা এই সাতটি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে কর্মকৌশল নির্ধারণ করা হয়েছে। তাদের বিনামুল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের জন্য দেশের ৬৪ জেলায় মোট ১০৩ টি সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র গড়ে উঠেছে এবং প্রত্যেক স্থলেব৩২ টি মোবাইল থেরাপী ভ্যান চালু হয়েছে। ভবিষ্যতে এ সংখ্যা আরও বাড়ানোর জন্য সরকার অঙ্গীকার করেছে। এছাড়া তাদের মূলধারায় আনতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতায় ৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি বিশেষ একাডেমি স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে।Image result for autism

এছাড়া অটিজমে আক্রান্তদের বিনামুল্যে সেবা প্রদানের জন্য মিরপুরে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন ক্যাম্পাসে “অটিজম রিসোর্স সেন্টার” ও একটি “স্পেশাল স্কুল ফর চিলড্রেন উইথ অটিজম ” স্থাপন করা হয়েছে।জাতিসংঘের উচ্চ পর্যায়ে এই বিষয়ক আলোচনায় বান কি মুনের স্ত্রী সহ প্রায় সকল বক্তায় বাংলাদেশ এর কর্মকৌশলের প্রসংশা করেন। এসময় সবাই কৃতজ্ঞচিত্তে বাংলাদেশের সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল এর নাম উচ্চারণ করেন। যা আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের।পুতুলের এ বিষয় ক সমস্ত প্রয়াস বিশাল গৌরবের বিষয় বলেই মনে করা উচিত। কারণ এ কাজটা মোটেও সহজ কাজ নয়,খুবই কঠিন একটা কাজ।তিনি সেই কাজটিই করে চলেছেন। তাই বিশ্ববাসীর কাছে সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুলকে নিয়ে আমরা গর্ব করতে পারি। এছাড়া ঢাকা সেনানিবাসে অটিস্টিক শিশুদের জন্য সরকার “প্রয়াস” নামে একটি বিদ্যালয় স্থাপন করেছেন। এবং সেনানিবাসে এর শাখা প্রতিষ্ঠার নির্দেশ দিয়েছেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহায়তায় “প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন” এবং “নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী ট্রাস্ট ” আইন করা হয়েছে।এই ট্রাস্ট বা ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের সুরক্ষা দেওয়ার কথা এক অনুষ্ঠানে তিনি তুলে ধরেছিলেন। এসব আলোচনায় স্পষ্ট যে, অটিজমের দুনিয়ার পালে এখন হাওয়া লেগেছে। তারা ক্রমেই সচল হয়ে উঠছে।অটিজমের ভুক্তভোগী পরিবারগুলোও সন্তান নিয়ে আগের মতো দিশেহারা হচ্ছেন না।Image result for autism

পরিশেষে, উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমাদের এই দেশ বহুমুখী সমস্যায় জর্জরিত।সুস্থ মানুষেরই সুষ্ঠু জীবন বিকাশ হুমকির মুখে।পর্বত পরিমাণ সমস্যাকুলেও আমরা যেন তাদের দুরবস্থা না ভুলি,স্মরণ রাখতে হবে। তাদের এই দুর্গতির পিছনে তাদের কোনো হাত নেই। সবই সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত। তারাও আমাদের মতো মানুষ, কেবল ভাগ্য বিড়ম্বিত। তাই অবহেলা নয়,করুণা পেয়ে নয়, যথার্থ মানুষ হিসেবে তাদেরও রয়েছে সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার অধিকার। আমাদের উচিত এটা কামনা করা যেন সবাই সুস্থ থাকে এবং মহান সৃষ্টিকর্তা যেন সবাইকে সুস্থ এবং ভালো রাখেন। সবাই ভালো থাকুক,সুস্থ থাকুক। ভাগ্য সকলের অনুকূলে থাকুক।

মাফরুহা জামান মীম

Social Shares

Related Articles

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *